অভিনয়ে চা’ন্স পেতে ছেলেরাও প্রযোজকের বিছানায় যায় !

বলিউডের খ্যাতিমান প্রযোজক ও পরিচালক একতা কাপুর।ভারতীয় এক সংবাদমাধ্যমের আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি বলেন, বলিউডে এমন কিছু অভিনেতা আছেন যারা কাজ পেতে তাদের যৌ’নতা ব্যবহার করে থাকেন।

কাজ পেতে তারা প্রয়োজনে বিছানায় চলে যান।উপ’স্থাপক বরখা দত্তের এক প্র’শ্নের জবাবে একতা আরো জানান,কেবলমাত্র কেউ ই’ন্ডা’স্ট্রিতে ভাল জায়গায় রয়েছে বলেই কাউকে দো’ষারোপ করা উচিত নয়।

অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও কাজ পেতে নিজেদের শরীরকে ব্যবহার করেন।তিনি যোগ করেন, এই ঘটনা হার্ভে ওযয়েন’স্টেইন পর্য’ন্ত সীমাব’দ্ধ নয়। বলিউডে এমন অনেক পরিচালক বা প্রযোজক আছেন যারা অনেকেই এই যৌ’ন হে’নস্থার শি’কার হয়ে থাকেন।

পাশাপাশি এমন কিছু অভিনেতা বা অভিনেত্রী আছেন তারা স্বে’চ্ছায় নিজেদের যৌ’নতা ব্যবহার করে থাকেন কেবলমাত্র কাজ পাওয়ার আশায়।

আমি বিশ্বাস করি যে শিকারিকে ক্ষমতার উপর ভিত্তি করে একটি বা’ক্সে রাখা উচিত নয়।তবে এটা সর্বদা সত্য নয় যে, যার ক্ষ’মতা নেই তারাই একমাত্র এই ঘটনার শি’কার হয়ে থাকেন, যোগ করেন একতা।

বিয়ে না করার কারণ জানালেন সালমান! সালমান খানের কথা উঠলেই যেটা সবার আগে মনে পড়ে সেটা হল পঞ্চাশ পেরিয়ে ভাইজান এখনো চিরকুমার। তবে কি বা কন কারণে তিনি এখনো বিয়ের পিড়িতে বসেন নি সেটা ‘স্প’ষ্ট বলেন না এই লাভার বয়।

কি’ন্তু স’ম্প্রতি একটা অভিযোগ জানিয়ে তিনি বলেন, প্রেমিকাদের ভালোবাসলেও তারা ভালোবাসত না। তাই হয়তো বিয়ে করা হয়ে ওঠেনি তার। টেলিভিশনের জনপ্রিয় শো বিগ বস ১৩ সিজনে এমনটাই দাবি করলেন সালমান।

শনিবার ও রোববার বিগ বসের মঞ্চে আসেন দীপিকা পাড়ুকোন, ল’ক্ষ্মী আগরওয়াল ও বি’ক্রা’ন্ত মসি। রোববারের পর্বে সালমান সবার সামনেই তার অতীত স’ম্পর্ক নিয়ে আলোচনা করেন।

দীপিকার স’ঙ্গে কথা বলার সময় তিনি বলেন, যে সালমান তার সব প্রেমিকাদেরই ভালোবাসতেন কি’ন্তু কেউ তাকে ভালোবাসত না।সালমান স্বীকার করেছেন যে তার অতীতের প্রেমিকারা ঠিকই করেছেন তাকে ভালো না বেসে।

কারণ তিনি যোগ্য ছিলেন না ভালোবাসার। সালমান প্রতিযোগীদের সঙ্গে কথা বলার পর তিনি ম’ঞ্চে দীপিকা, ল’ক্ষ্মী ও বি’ক্রা’ন্তকে ‘স্বাগত জানান। সেখানে সালমান মজা করেন দীপিকার সঙ্গে।

আবদুর রশিদ সলিম সালমান খান ৫৪ বছরে পা দিলেও এখনো অবিবাহিত। ক্যারিয়ারের শুরু হতেই ভারতীয় চলচ্চিত্রে দাপুটে এ অভিনেতা বলিউডের জনপ্রিয় তিন খানদের অন্যতম।

১৯৮৮ সালে ‘বিবি হো তো এহসি’ চল’চ্চিত্রে একটি গৌণ ভূমিকায় অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তার চলচ্চিত্রে যাত্রা শুরু হয়। এক বছর পরেই ‘ম্যায়নে পিয়ার কিয়া’ নামের ছবিতে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করে ব্যাপক সাফল্য পান এবং সেই সময় ফি’ল্মফেয়ার পুর’স্কার অনু’ষ্ঠানে শ্রে’ষ্ঠ নবাগতের পুর’স্কার লাভ করেন। এর পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

সা,নাইয়ের স’র্ব,নাশ করলো পাশের বাসার ছেলে!

বর্তমান সময়ের আলোচিত ও সমালোচিত মডেল সানাই মাহবুব। গেল কয়েক বছরে তাকে নিয়ে আলোচনা সমালোচনা কম হয়নি। কিন্তু সেসব গায়ে না মেখে নিজের ছন্দেই ছুটে চলছেন সানাই।এদিকে গত সপ্তাহে নতুন একটি শর্টফি’ল্মে অভিনয় করেন সানাই।

চিলেকোঠার গল্প নামের শ’র্টফিল্মটিতে তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন বাপ্পা সান্তনু। রাজধানীর ৬০ ফিট এলাকায় এর দৃশ্যধারণের কাজ করা হয়েছে। এটি নির্দেশনা দেন দীপক কর্মকার। শর্টফি’ল্মটির ডিওপি হিসাবে কাজ করেছেন মীর হান্নান।এ ব্যাপারে সানাই বলেন, ‘চিলেকোঠার গল্প শর্টফিল্মটির গল্প একেবারেই আলাদা।

আমাদের চারপাশের চিরচেনা একটি গল্প। সমাজে এমন চিত্র অনেক সময় দেখা যায়। শর্টফিল্মটিতে আমি শারিরীক প্রতিব’ন্ধী মেয়ে চরিত্রে অভিনয় করেছি। যাকে ভুলিয়ে বালিয়ে পাশের বাসার একটি ছেলে ধ’র্ষ’ন করে। এরপর নানা ঘটনার মধ্যদিয়ে গল্প এগিয়ে যাবে।

এতে কিছু সমাজ সচেতনমূলক মেসেজও দেয়া হয়েছে।’এদিকে সানাই বেশ কয়েকটি ছবিতে চুক্তিব’দ্ধ হলেও ময়নার ইতিকথা নামের একটি ছবির কাজ শেষ করেছেন। এতে তিনি নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন। ছবিটি মু’ক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। বাবু সি’দ্দিকীর পরিচালনায় এতে সানাইয়ের বিপরীতে

এদিকে গ’র্ভবতী সানাই এই বিষয় মু’খ খুললেন নিজেই সময়ের আলোচিত মডেল ও অভিনেত্রীদের নাম সামনে আসলেই চলে আসে সানাই নামটি।বর্তমান সময়ের আলোচিত এই মডেলের পিছু ছাড়ছেনা একটি কু’চক্রী। ভালো ম’ন্দ যাচাই-বাচাই না করে সানাই নামটি দেখলেই জুড়েদেন নানা রকমের বিত’র্ক।

বর্তমান সময়ে নতুন করে কিছু অনলাইনে গ’র্ভবতী ইস্যু নিয়ে গু’জব র’টানর চে’ষ্টা করছে ঐমহল। কিন্তু এই গু’জবকে ভুয়া ও বানোয়াট বলে জানিয়েছেন অভিনেত্রী সানাই।নানা রকমের বাজে ম’ন্তব্যের বেড়াজাল থেকে সানাইকে যেন ছাড়ছেনা।

শারীরিক গঠন, মন্ত্রীর বউ, সর্ট পোশাকে ভিডিও ইত্যাদি। একটি মহল বলছে এমন কাজ করেই সোস্যাল মিডিয়াতে তার জায়গা ধরে রাখছেন।কিন্তু সানাই বলছেন, আমি আমার কাজের মাধ্যমে সমাজের ভালো কাজের সঙ্গে যু’ক্ত

থেকে নিজের জায়গা করে নিয়েছি।বিনোদন প্রেমীরা আমার কাজ ও আমাকে পছন্দ করে বলেই আমি খুব অল্প কিছুতে জনপ্রিয় হয়ে উঠি।গ’র্ভবতী ইস্যু! ইতিমধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক সহ বিভিন্ন মাধ্যমে শোনা যাচ্ছে সানাই গ’র্ভবতী।

যদিও বিষয়টিকে গু’জব বলেই উড়িয়ে দিয়েছেন সানাই।সানাই বলেন- ‘ আপনারা জানেন আমি ওজন বাড়ার কারণে নিয়মিত জিমে যাচ্ছি। যা হচ্ছে নিত্যা’ন্তই মিথ্যে ও বানানো গল্প। এগুলো বন্ধ করুন প্লিজ।’সানাই আরো বলেন, ‘আমি তো মানুষ।

কেন তারা আমাকে নিয়ে এমন বাজে মন্তব্য করছেন। প্লিজ এক বার আপনারা আমাকে আপনাদের বোন মনে করে দেখেন এমন বাজে মন্তব্য আসে কিনা? আমি যা করি তা নিয়েই সবাই হুমড়ি খেয়ে পড়ে। সবার কাছে

অনুরোধ নারীদের সম্মানের জায়গায় রাখুন।উল্লেখ্য, সানাই এর জন্ম ঢাকার ধানমন্ডিতে হলেও তার পৈত্রিক নিবাস নীলফামারীতে। পড়াশোনার জন্য তিনি বেশ কিছুদিন রংপুরে ছিলেন। তার বাবা-মা উচ্চপদস্থ বেসরকারি কর্মকর্তা।

সানাই এখন ঢাকায় স্থায়ীভাবে বসবাস করেন। নাবিলা, স্মা’র্টে’ক্স, নাগরদোলা ইত্যাদি ফ্যাশন হাউজে মডেল হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন তিনি। জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে উপস্থাপিকা হিসেবেও কাজ করেছেন।

এরপর ২০১৬ সালের নভেম্বর মাসে ঢাকার গুলশান ক্লাবে একটি ফ্যাশন শো চলাকালীন সময়ে বাংলাদেশি চলচ্চিত্র নির্মাতা গাজী মাহবুবের সঙ্গে সানাই এর পরিচয় হয়। গাজী মাহবুব তখন তার নির্মাণাধীন চলচ্চিত্র ভালোবাসা

২৪/৭ এর জন্য সানাইকে চিত্রনায়িকা হিসেবে পছন্দ করেন। এই চলচ্চিত্রে সানাই এর বিপরীতে অভিনয় করেন জায়েদ খান। ভার্চ্যুয়াল জগতে আলোচিত সানাই মাহবুব সুপ্রভা সর্বশেষ একটি ক’নডমের বিজ্ঞাপনের মডেল হয়েছেন ।ক’নডমের নাম ‘Seduction level up’ ।

করোনা মু’ক্ত হলেন মাশরাফি!

করোনাভাইরাস মুক্ত হলেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য এবং জাতীয় দলের ‘ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মু’র্তজা।

ম’ঙ্গলবার (১৪ জুলাই) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে নিজের ভেরিফাইড পেজে বিষয়টি জানান তিনি।

তবে তার ‘স্ত্রীর করোনাভাইরাস পরী’ক্ষার ফল এখনও পজিটিভ আছে বলেও তিনি জানান।

নিজের করোনা নেগেটিভ নিয়ে ফেসবুকে তিনি লেখেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহর রহমতে ও আপনাদের সবার দোয়ায় আমার কনোরাভাইরাস পরী’ক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে। আজকে রাতেই ফল জানতে পেরেছি।

এই পুরো সময়টায় যারা পাশে ছিলেন, দোয়া করেছেন, অনেকে উদ্বিগ্ন ছিলেন ও নানা ভাবে খোঁজ নিয়েছেন বা নেওয়ার চে’ষ্টা করেছেন, সবার প্রতি কৃত’জ্ঞতা।

‘স্ত্রীর করোনা আ’ক্রা’ন্তের বিষয়ে তিনি আরো লেখেন, শনা’ক্ত হওয়ার পর দুই স’প্তাহের বেশি সময় পেরিয়ে গেলেও আমার ‘স্ত্রীর করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফল এখনও পজিটিভ। তবে সবার দোয়ায় সে ভালো আছে। তার জন্য দোয়া প্রা’র্থনা করছি।

বাসায় থেকে চিকিৎসা নিয়েই আমি সেরে উঠেছি। যারা আক্রান্ত হয়েছেন, সবাই সাহস রাখবেন।

আল্লাহর ওপর ভরসা রাখবেন। নিয়ম মেনে চলবেন।

এর আগে দু’দিন ধরেই ‘জ্বরে ভুগছিলেন সংসদ সদস্য মাশরাফি।

তার উপস’র্গ ছিল গা ও মাথা ব্যথা। এ জন্য ১৯ জুন পরী’ক্ষার জন্য নমুনা দেন তিনি। শনিবার (২০ জুন) করোনা পজিটিভ হওয়ার ফলাফল আসে তার।

১০ কো’টি টা’কা নি’য়ে স্বা’মী খুঁজছেন নিঃস’ঙ্গ না’রীরা। বিস্তারিত দেখুন:

নিঃস’ঙ্গতার অ’বসান ঘটাতে কোটিপতি সৌদি নারীরা বিয়ের জন্য স্বামী খুঁজছেন। বিয়ের ক্ষেত্রে বিদেশি স্বামী এবং তাদের সন্তানদের সৌদি নাগরিকত্ব পাবার আইন সং’স্কার হওয়ার পরই তারা এ অনুস’ন্ধানে নেমেছেন। খবর- হাফিংটন পোস্ট।এদেরই একজন ৪০ বছরের হেসা।

তিনি বিয়ের ইচ্ছে ব্যক্ত করে বলেন, তার বাবা মারা যাওয়ার পর উ’ত্তরাধিকার সূত্রে প্রচুর ধনসম্পদের মালিক। তাকে সম্মান করবেন এমনই এক স্বামী খুঁজছেন তিনি।২০১২ সালে সৌদি সাময়িকী রোয়া এক প্রতিবেদন বের হয়। এতে বলা হয়, এক নারী ভাল স্বামীর খোঁজে ৫০ লাখ সৌদি রিয়াল নিয়ে অপেক্ষা করছেন।
যিনি বিবাহিত জীবন ও দায়িত্বকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করবেন।২০১৪ সালে আমিরাতের একটি নিউজ সাইট জানায়, অনেক সৌদি কোটিপতি নারী টুইটারে বিয়ের আগ্রহের কথা জানান। এমন একটি পোস্টে সৌদি এক নারী জানান, তিনি তা’লাকপ্রা’প্তা ও নিঃসন্তান। তিনি এমন একজন স্বামী খুঁজছেন যিনি তাকে ভালবাসবেন।

উত্তরাধিকার সূত্রে তিনি একশ মিলিয়ন রিয়ালের মালিক। ৩৯ বছর বয়সী এই নারী তার পারিবারিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন।এর আগে ২০০৭ সালে এক সৌদি নারী স্বামী খুঁজছিলেন। চাহিদা বলতে তিনি স্বামীর ব্যক্তিত্বকেই প্রাধান্য দেয়ার কথা বলেন। তার সম্পদের পরিমাণ ছিল ৭০ লাখ রিয়াল।
যুক্তরাষ্ট্রের ইউটা অঙ্গরাজ্যে ৭৫ বছর বয়সী এক বৃদ্ধার ম’রদেহ উ’দ্ধার করতে গিয়ে বাড়ির ডিপ ফ্রিজ থেকে ওই বৃদ্ধার স্বামীর ম’রদেহ উ’দ্ধার করেছে পু’লিশ। এ নিয়ে ওই এলাকায় বেশ চা*ঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।মা’র্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এক প্রতিবেদনে জানায়, দুই সপ্তাহ ধরে কোনো দেখাসাক্ষাৎ না পাওয়ায় গত মঙ্গলবার নিয়মিত পরিদর্শনের অংশ হিসেবে টুয়েলো

শহরে ওই বৃদ্ধা জিন স্যুরন-ম্যাথার্সের অ্যাপার্টমেন্টে তাঁকে দেখতে যান সমাজকর্মীরা।কিন্তু তাঁর অ্যাপার্টমেন্টে গিয়ে বিছানার ওপর জিন স্যুরন-ম্যাথার্সের ম’রদেহ পাওয়া যায়। তাঁর স্বাভাবিক মৃ’ত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে পু’লিশ।তবে এরপর যা ঘটেছে তা চ’মকে দিয়েছে সমাজ কর্মীদের। অক্ষত অবস্থায় বাড়ির ডিপ ফ্রিজে খুঁজে পাওয়া যায় ওই বৃদ্ধার ৬৯ বছর বয়সী

স্বামী পল এডোয়ার্ড ম্যাথার্সের ম’রদেহ।ঘটনার র’হস্য উদঘাটনে বিস্তারিত ত’দন্ত চলছে বলে জানিয়েছে পু’লিশ।গোয়েন্দারা ধারণা করছে, সর্বনিম্ন দেড় বছর বা সর্ব্বোচ্চ ১১ বছর সময়কালের মধ্যে পল এডোয়ার্ড ম্যাথার্সের মৃ’ত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এডোয়ার্ডের মৃ’ত্যুর সঙ্গে স্ত্রী’ জিন স্যুরন-ম্যাথার্স জ’ড়িত কি না, তা স্পষ্ট নয়। কারণ প্রতিবেশীদের ভাষ্যমতে, ওই বৃদ্ধা হৃদয়বান ছিলেন।

আলিয়া ভাট এসেছিলেন দেখা করতে, জামাল ভূঁইয়া চিনতেই পারেননি

বলিউডের জনপ্রিয় নায়িকা। এসেছিলেন জামাল ভূঁইয়ার সঙ্গে দেখা করতে; কিন্তু আলিয়া ভাটকে সেদিন চিনতেই পারেননি বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক। যখন অন্যদের কাছ থেকে পরে জানতে পারলেন, আফসোসই হচ্ছিল জামালের।

ঘটনা গত বছর কলকাতার সল্ট লেকের যুব ভারতি স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপ বাছাই ম্যাচের দিনের। ভারতের বিপক্ষে যে ম্যাচে দুর্দান্ত খেলেছিল বাংলাদেশ। জামাল ভূঁইয়ার বাঁকানো এক ফ্রি-কিক থেকে হেডে গোল করেছিলেন সাদ উদ্দিন। ৮৭ মিনিট পর্যন্ত বাংলাদেশই এগিয়ে ছিল ম্যাচে। শেষ মুহূর্তে গোল খেয়ে ১-১ ড্র নিয়ে ফিরতে হয় লাল সবুজ জার্সিধারীদের।

ওই ম্যাচের দিন জামাল ভূইয়ার সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন বলিউড অভিনেত্রী আলিয়া ভাট; কিন্তু হিন্দি সিনেমা দেখেন না বলে তাকে চিনতে পারেননি বাংলাদেশ অধিনায়ক। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের ফেসবুক লাইভ আড্ডায় সে গল্পটাই শোনালেন জামাল।

তিনি বলেন, ‘আমি তখন হোটেলের লবিতে। সেখানে একজন এসেছিল। তার সঙ্গে ছিল একজন মেয়ে। খুবই সুন্দর দেখতে। মেয়েটি বলেছিল তার নাম আলিয়া ভাট। আমি তখন জানতামই না, আলিয়া একজন বলিউড তারকা। পরে জানলাম, আমাকে দেখতেই নাকি লবিতে এসেছিলেন। এখন আফসোস হয়, কেন যে তার সঙ্গে ছবি তুললাম না (হাসি)।’

ওই ম্যাচের দিন বাংলাদেশ থেকেও অনেক সমর্থক গিয়েছিলেন কলকাতার সল্টলেক যুবভারতি স্টেডিয়ামে। জামাল ভূঁইয়া জানালেন, সেই মুহূর্তটা ছিল অসাধারণ। তার ভাষায়, ‘কলকাতা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশিরা গিয়েছিল দেখে আমার খুবই ভালো লেগেছে। ম্যাচের পর আমার মনে হয়েছিল, বাংলাদেশের সমর্থকরা এখানে এসেছে, ওয়াও! এটা আমাদের জন্য স্পেশাল কিছু ছিল। তারা আমাদের সমর্থন দিতে গিয়েছে। আমি এমনিতে আনন্দ প্রকাশ করি কম; কিন্তু ওইদিন আমার অনেক আনন্দ লেগেছিল।’

মানুষদের সাহায্যের জন্য নিলামে বিক্রি হওয়া সাকিব-মুশফিকদের ব্যাট ফিরিয়ে আনবে বিসিবি

ক’রোনা ভা’ইরাসের কারণে গোটা দেশ বন্ধ হয়ে আছে আজ দুই মাস যাবত। দিন দিন বাড়ছে এর ভয়াবহতা। এর মাঝে সবচেয়ে অসহায় ভাবে জীবন যাপন করছে খেটে
খাওয়া মানুষ দিনমজুর যারা। কাজ করতে না পারায় দুই বেলা দু মুঠো অন্ন জোটে না তাদের কপালে। ঠিক এমন সময় এই অসহায় মানুষদের সাহায্য করার জন্য এগিয়ে

আসে দেশের অনেক বিত্তবান।
অসহায় মানুষদের সাহায্য করার জন্য এগিয়ে আসে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের অনেক খেলোয়াড়। এই দুর্যোগের সময় অসহায় মানুষদের পাশে থাকার জন্য বড় বড় খেলোয়ার
তাদের গড়া রেকর্ডকৃত ব্যাট বল নিলামে তুলেন। যুক্তরাষ্ট্রপ্রবাসী কিনেন 2019 বিশ্বকাপে খেলার সাকিবুল হাসানের ব্যাট এবং বাংলাদেশের একমাত্র ডাবল সেঞ্চুরি করা

মুশফিকের রহিমের ব্যাট কিনে শহীদ আফ্রীদি ফাউন্ডেশন।
দেশের হয়ে অর্জন করা এই স্মারক গুলো ছিল বাংলাদেশের সম্বল। তাই এই সম্বল গুলোকে ফিরিয়ে আনতে চায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি। তাই এই বিষয়ে বিসিবি
ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন নিজ মুখেই বলেন যে আমরা অবশ্যই নিলামে বিকৃত ব্যাট বল সব গুলো ফিরিয়ে আনার আপ্রাণ চেষ্টা করব। বিসিবির
বাধ্যবাধকতা থাকায় আমরা নিলামে অংশগ্রহণ করতে পারিনি।

সবকিছু ঠিকঠাক হলে আমরা অবশ্য এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ গ্রহণ করব। আর যেভাবেই হোক না কেন আমাদের দেশের স্মারক গুলো আমরা অবশ্যই ফিরিয়ে আনব। আর

আমি ক্রিকেটারদের কথা বলব তারা অবশ্যই খুব মহৎ একটি কাজ করেছে। দেশের এই দুর্যোগের সময় তারা অসহায় মানুষদের সাহায্যের জন্য এগিয়ে এসেছে। তাদের এই

কাজকে আমি সাধুবাদ জানাই।

বয়ফ্রেন্ড হওয়ার চাকরি-! বেতন ঘন্টায় ৪০০ টাকা

উচ্চ মাধ্যমিক পাশ বেকার ছেলেদের বয়ফ্রেন্ডের চাকরি দি’চ্ছে একটি সং’স্থা। আর এর জন্য পা’রিশ্র’মিক হিসেবে তারা পাবেন ২৫০ থেকে ৪০০ টাকা।
এছাড়াও ছেলের যো’গ্যতা অনুযায়ী বাড়তে পারে টাকার অ’ঙ্ক। শিক্ষিত, যোগ্যতা স্মা’র্টনেস মিলিয়েই পা’রিশ্র’মিক দেওয়া হবে।

জা’না গে’ছে একাকী’ মেয়েদের একাকিত্ব কা’টাতে বয়ফ্রেন্ড জোগাড় করে দিচ্ছে সং’স্থাটি। যে নারী বয়ফ্রেন্ড ভাড়া করবে তার নাম এবং সম’স্ত তথ্য গো’পন রাখা হবে।
তবে বয়ফ্রেন্ড বুক করার ক্ষে’ত্রে কিছু নিয়ম আছে। কোনো নারী যদি বয়ফ্রেন্ড ভাড়া ক’রতে চান তাহলে তাকে অনলাইনের মাধ্যমে পুরো প্র’ক্রিয়া স’ম্পন্ন ক’রতে হবে। ‘রেন্ট এ বয়ফ্রেন্ড’

নামের একটি অ্যাপের মা’ধ্যমে এটি করা যাবে। তবে ভাড়ার সমস্ত টাকা ‘বয়ফ্রেন্ড’ হিসেবে কাজ করা ছেলেটি নিতে পারবে না। তার কিছু অংশ দিতে হবে ওই সং’স্থাকে।
আবার যে নারী বয়ফ্রেন্ড ভাড়া নেবে তার জন্যেও রয়েছে কিছু শর্ত। যেমন ভাড়া করা বয়ফ্রেন্ড নিয়ে কোনো পা’র্টিতে যাওয়া যাবে না। তার স’ঙ্গে কোনো শা’রীরিক স’ম্পর্ক করা যাবে না ইত্যাদি। আপাতত ভারতের মুম্বাই ও পুনে শহরে এই পরিসেবা চালু হয়েছে।

বিয়ে করেছেন সালমান খান
বলিউডের নামকরা ‘ব্যাচেলর’ নাকি এবার বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন। ঠিকই ধ’রেছেন, সালমান খানের কথাই বলছিলাম। পাত্রী কে জা’নেন? ‘বীর’ ও ‘যুবরাজ’ ছবিতে সালমানের সহ অভিনেত্রী জা’রিন খান। স’ম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জা’নিয়েছেন জা’রিন।

স’ম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে জা’রিনকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল সালমান, করণ সিং গ্রোভার ও গৌতম রোডের মধ্যে কাকে তিনি মা’রতে চান এবং কার স’ঙ্গে স’স্পর্কে জড়াতে চান? আর কাকেই বা বিয়ে ক’রতে চান?
উত্তরে জা’রিন বলেন, ”আমি কাউকেই মা’রতে চাই না। আবার বিয়েতেও বিশ্বা’স রাখি না। আমা’র মতে বিয়ে একটা স্বচ্ছ প্রতিষ্ঠান, তবে বর্তমান যুগে এসে এটা একটা ঠাট্টার বি’ষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।

তবে করণ ও গৌতম দুজনেই যেহেতু বিবাহিত, তাই সালমানের স’ঙ্গে ই স’স্পর্কে জড়াতে চাই। সালমানের স’ঙ্গে আমা’র বিয়ে হচ্ছে এমন গু’জব ছড়াতেও আমা’র বেশ ইচ্ছে করে।”

জীনে নিয়ে গেল ৮ম শ্রে’ণির ছা’ত্রীকে-! তারপর ঘটল অভাক কান্ড

তার নাম সানজিদা আক্তার মিতু। তাকে উদ্ধার করার পর নাম বলল, জান্নাতুল ফেরদাউস মরিয়ম। থাকে ঢাকায়। নিখোঁজ হয়েছিল রোববার সকালে। রাতে বাড়ি ফেরার আগে জানা গেল সে আসলে মিতু। তার বাড়ি মীরসরাইয়ে।মীরসরাই উপজেলার মায়ানী ইউপি চেয়ারম্যান কবির আহমদ নিজামী জানান, রোববার বিকাল ৪টায় আমার এলাকার ইউপি সদস্য জানে আলম ১৪ বছরের এক কিশোরীকে আমার কার্যালয়ে নিয়ে আসেন। পশ্চিম মায়ানী গ্রামের শাহ আলম হুজুর তার বাড়ি থেকে উক্ত মেম্বারের কাছে ওই কিশোরীকে হস্তান্তর করেন।

পরিচয় জানতে চাইলে কিশোরী জানায়, তার নাম জান্নাতুল ফেরদাউস মরিয়ম। ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদের পার্শ্ববর্তী একটি বাসায় আন্টির সঙ্গে থাকে। এখানে তাকে একটি জিনে নিয়ে এসেছে। জিন তাকে সিএনজিতে রেখে চলে গেছে। এই জিন তাকে আগেও নিয়ে এসেছিল। আবার বাড়ি পৌঁছে দিয়েছে। সে তার বাবা-মা কিংবা নিকটাত্মীয় কারো মোবাইল নম্বর বা ঠিকানা বলতে পারছিল না।

ইউপি চেয়ারম্যান কিশোরীর বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমিনের পরামর্শ চান। নির্বাহী কর্মকর্তা কিশোরীকে জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরে হস্তান্তরের চেষ্টা করছিলেন। এর মধ্যে রাত ৮টার দিকে কিশোরীর পরিবারের হদিস পাওয়া যায়।
জানা যায়, ওই কিশোরী মীরসরাই উপজেলার মঘাদিয়া ইউনিয়নের শেখটোলা গ্রামের রসুল আহমেদ ও সুরাইয়া বেগমের কন্যা সানজিদা আক্তার মিতু। বাবা থাকেন প্রবাসে। খবর পেয়ে মা, চাচাসহ স্বজনরা ইউএনও কার্যালয়ে আসেন। তারা পারিবারিক অ্যালবামের ছবি দেখান।

চাচা মহিউদ্দিন জানান, মিতু মলিয়াইশ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী। সকালে উঠে নামাজ পড়ে, কোরআন তেলাওয়াত করে সে নিখোঁজ হয়ে যায়। এরপর তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। তিনি জানান, গত রমজানের পরও তার এমন সমস্যা হয়েছিল। এবার পাশের ইউনিয়নে চলে যায়। দুপুরে তাকে পাওয়া যায় শাহ আলম হুজুরের বাড়িতে।

তাদের পরিবারে দুপুরের খাবার খায়। আশপাশের গ্রামে তাকে অনেক খোঁজা হয়। ইউএনওর কার্যালয়ে একটি মেয়েকে আনা হয়েছে শুনে তারা ছুটে আসেন।রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে সানজিদাকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেন নির্বাহী কর্মকর্তা। এসময় অশ্রসিক্ত সানজিদার মা সুরাইয়া আক্তার বলেন, আমার মেয়েকে নিরাপদে ফিরে পাওয়ায় ইউএনও এবং ইউপি চেয়ারম্যানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি।ইউএনও রুহুল আমিন বলেন, কিশোরীর বয়সন্ধিকালীন কোনো মানসিক চাপের কারণে এ রকম ঘটতে পারে। সন্তানদের প্রতি সবার খেয়াল রাখা উচিত বলে জানান তিনি।